রাজধানীতে বিকাশ এজেন্টদের দোকানেই প্রতারক চক্র; গ্রাহকরা সাবধান

bkashঅননিউজডেক্স।। বিকাশ এজেন্টদের থেকে তথ্য নিয়ে গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণায় মেতে উঠেছে একটি চক্র। বিভিন্ন ছলচাতুরি করে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা। আর এই চক্রের সঙ্গে বিকাশ এজেন্টদের যোগসাজসের অভিযোগ দীর্ঘদিনের। চক্রটি এবার প্রতারণায় অভিনব কৌশল শুরু করেছে। রোববার রাত পোনে ১০টার দিকে এক সাংবাদিক এ ঘটনার শিকার হয়েছেন। সাংবাদিক অঞ্জন (ছদ্দনাম) জানান, রামপুরার বনশ্রী সি-ব্লক মেইন রোডের ‘আইডিয়াল টেলিকম এন্ড স্টেশনারী’তে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিকাশ থেকে টাকা তোলেন। এরপর রাত পোনে ১০টার দিকে ওই দোকানে বিকাশের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়া হয়। একইসঙ্গে বলা হয়, কিছুক্ষণ আগে সেখান থেকে কিছু টাকা ভুলক্রমে ওই সাংবাদিকের বিকাশ একাউন্টে ঢুকেছে। এরপর সেই টাকা ফিরিয়ে দিতে অনুরোধ করা হয়। এসএমএস দেখেই টাকা ফিরিয়ে দেয়ার পর তিনি লক্ষ্য করেন, মূহূর্তেই প্রতারিত হয়েছেন তিনি। প্রতারক চক্রটি একটি নাম্বার থেকে ফোন দিয়েছে, আরেকটি নাম্বার থেকে এসএমএস দিয়েছে এবং অন্য আরেকটি নাম্বারে টাকা পাঠাতে বলেছে। এই প্রতারণায় ব্যবহার হয়েছে ০১৭৯১৫৩৪০০৮, ০১৭৮১৫৯৩৯০৬ এবং ০১৬৩৫৮৮৩৪১৮ নম্বার।

বরশ্রী সি-ব্লক মেইন রোডের ‘আইডিয়াল টেলিকম এন্ড স্টেশনারী’ নামের দোকানটি থেকেই গ্রাহকের বিকাশে টাকা উত্তোরণের তথ্য সরবরাহ করা হয়েছে। অথবা দোকানটি সরাসরি এই প্রতারণার সঙ্গে জড়িত বলে অনেকই ধারণা করছেন। তাদের দোকানে বসে এই প্রতারণার শিকার হচ্ছেন অনেকেই। অথচ ধরাছোঁয়ার বাইরেই থেকে যাচ্ছে চক্রটি। তাই বিকাশে টাকা লেনদেনে সতর্ক হওয়ার বিকল্প নেই বলছেন এজেন্টরা। তবে তারা প্রতারণায় জড়িত থাকার বিষয়টি মানতে নারাজ। অথচ কিভাবে প্রতারক চক্রের হাতে তথ্য পৌঁছে যাচ্ছেন, এর কোনো উত্তর তাদের কাছে নেই। তবে নাম্বারগুলো নিয়ে পুলিশ ব্যবস্থা নিলেই বেরিয়ে আসতে পারে এই চক্রের মূল হোতারা।

-অননিউজ/সম্পাদনা/পলি আক্তার / ৮ মে ১৭ইং