আবুল হায়াতের ৭১তম জন্মদিন

abul Haietডেস্ক।। গতকাল বেশ ঘটা করে পালিত হয়েছেআমাদের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের আলোকিত মুখ আবুল হায়াতের ৭১তম জন্মদিন। এউপলক্ষে নাগরিক নাট্য সম্প্রদায় ধানমন্ডির ছায়ানট ভবনে আয়োজন করেছিল আনন্দআড্ডার। এ বিষয়ে গুণী এই শিল্পীর সাথে কথা বলেছেন আলমগীর কবির।

 জন্মদিনের শুভেচ্ছা। কেমন আছেন?

ভালো আছি। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন সামনের দিনগুলোতে যেন সবার ভালোবাসা নিয়ে বেঁচে থাকি।

 ৭০ পেরিয়ে ৭১-এ পা রাখছেন কেমন লাগছে?

৭০টি বছর পেছনে ফেলে এসেছি এটা ভেবে কষ্ট লাগছে। তবে আনন্দ লাগছে আরো একটি নতুন বছরে পা রাখাতে পারার  সৌভাগ্য হওয়ায়।

 আপনার এবারের জন্মদিনটা মিডিয়াঙ্গনের সবাই একসাথে পালন করছে। নিশ্চয়ই এটা নতুন অভিজ্ঞতা।

হ্যাঁ, এটা নতুন অভিজ্ঞতা। এর আগে এত সংগঠন উদ্যোগী হয়ে আমার জন্মদিনপালন করেনি। গাজী রাকায়েতকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ। কারণ ওর উদ্যোগেই নাগরিকনাট্য সম্প্রদায়, চারুনীড়ম, টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন ওডিরেক্টরস গিল্ডসের কর্মীরা ছায়ানটে আজ (রোববার) মিলেমিশে একাকার।

অভিনয়ের বাইরে আপনার সময় কিভাবে কাটে?

অভিনয়ের বাইরে বাসায় বসে লেখালেখি করা হয় বেশি। লেখালেখি আমার সময়কে বেশ আনন্দঘন করতে সহায়তা করে।

 এখন কী লিখছেন?

বিটিভির জন্য একটি ধারাবাহিক নাটক লিখছি। নাম উত্তর দণি। মূলত একজনলেখককে নিয়েই আমার নাটকের পটভূমি গড়ে উঠেছে। পাশাপাশি এতে সমাজের নানাসমস্যা ও তার প্রতিকারের বিষয়গুলোও তুলে ধরা হচ্ছে।

 আপনি তো নির্মাণের সাথেও যুক্ত আছেন।

ঈদ উপলে দু’টি খণ্ডনাটক নির্মাণ করার প্রস্তুতি নিয়েছি। এগুলো হচ্ছে-কথা সাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনের নায়িকা ও এপাশে আকাশ।  এ ছাড়া কয়েকটি নাটকেরনাম এখানো ঠিক হয়নি। নাটকগুলোর শুটিং এ মাসেই শুরু করব। নায়িকা প্রচার হবেচ্যানেল আইতে। এপাশে আকাশ প্রচার হবে এনটিভিতে।

 মঞ্চের কী অবস্থা?

আমাদের শুরু তো হয়েছিল মঞ্চ থেকেই। সব সময় চেষ্টা করি মঞ্চের সাথেসম্পৃক্ত থাকতে। প্রতি মাসে একবার আমার সূচনা নাটকটি মঞ্চস্থ হয়। সেইধারাবাহিকতায় আজ (রোববার) আমার জন্মদিন উপলক্ষে নাটকটির মঞ্চায়ন হয়েছে।

-অননিউজ/সম্পাদনা: সা আ/৮সেপ্টেম্বর১৪